মঙ্গলবার ( ২১ জুন, ২০২২) সন্ধ্যায় জাতীয় যাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ট্রান্সজেন্ডার, হিজড়া ও লিঙ্গ বৈচিত্র্যময় জনগোষ্ঠীর মানবাধিকার, সামাজিক গ্রহণযোগ্যতা এবং লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতার নিয়ে নির্মিত সাতটি চলচ্চিত্রও প্রদর্শিত হয় অনুষ্ঠানে। পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানের অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও নির্মাতা নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু; বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও বিটিভির সাবেক মহাপরিচালক ম. হামিদ এবং বন্ধু সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির চেয়ারপারসন ও বিশিষ্ট নৃত্যশিল্পী আনিসুল ইসলাম হিরু।
অনুষ্ঠানে অতিথিরা বলেন, সমাজে পিছিয়ে থাকা এই জনগোষ্ঠীকে সামনে আনতে গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে চলচ্চিত্র। এই জনগোষ্ঠীকে নিয়ে আরো বেশি বেশি চলচ্চিত্র নির্মাণ করে তা সর্বস্তরের মানুষকে দেখানোর ব্যবস্থা করতে হবে, তাহলে দ্রুত জনসচেতনতা তৈরি হবে।
স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতা- ২০২২’র মাধ্যমে সাতজন নির্মাতাকে ট্রান্সজেন্ডার, হিজড়া ও লিঙ্গ বৈচিত্র্যময় জনগোষ্ঠী নিয়ে বিষয়ভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করে পসিবিলিটি ও বন্ধু সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটি (বন্ধু)। এক আড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সেরা নির্মাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। প্রথম পুরস্কার হিসেবে ছিলো ক্রেস্ট ও নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকা, দ্বিতীয় পুরস্কার ক্রেস্ট ও নগদ চল্লিশ হাজার টাকা এবং তৃতীয় পুরস্কার ক্রেস্ট ও নগদ ত্রিশ হাজার টাকা। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতা- ২০২২’র ডাক দিয়ে যায় (দেবাশীষ কিশোর) প্রথম, প্রতীতি (জান্নাতুল ফেরদৌস নীলা) দ্বিতীয়, মানুষ (মাহফুজুর রহমান) এবং হি সি অর দেম (আহমেদ শাব্বীর) যৌথ ভাবে ৩য়, আওয়াজ (শরীফুল ইসলাম পলাশ), সুন্দরতম (পান্থ চৌধুরী), সত্য (নওশীন
17জান্নাতুল)।
1
2 3 4 5 11 10 9 8 6 12 13 14 15 1